কোমর ব্যথা কমানোর পাঁচটি ঘরোয়া উপায় জেনে রাখুন

0
328

দীর্ঘ সময় বসে বসে কাজ করা বা দাঁড়িয়ে কাজ করা ভারী জিনিস তোলা অথবা ত্রুটিপূর্ণ অঙ্গবিন্যাস ইত্যাদি কারণে কোমর ব্যথা হতে পারে। অধিকাংশই হয়তো এই ব্যথা নিয়ে বসবাস করেন অথবা ব্যথার ওষুধ খান। কিন্তু ব্যথার ঔষধ ব্যথা উপশমে স্থায়ী সমাধান দিতে পারে না।

এক্ষেত্রে কিছু ঘরোয়া উপায় রয়েছে যেগুলো কোমর ব্যথা কমাতে খুবই উপকারী। কিন্তু আমরা প্রায় সেই এই সকল সূক্ষ্ম বিষয়ে নজর দেই না। কোমর ব্যথা নিয়ে টাইমস অফ ইন্ডিয়া পত্রিকা এমনই কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। আসুন জেনে নেই সেই সকল ঘরোয়া পদ্ধতি যা কোমর ব্যথা উপশমে অত্যন্ত কার্যকরী।

১। নিয়মিত হালকা ব্যায়াম:

কিছু ব্যায়াম রয়েছে যেমন হাঁটা, দৌড়ানো, স্ট্রেসিং যা কোমর ব্যথা নিরাময়ে কার্যকর হতে পারে। এই সকল ব্যায়াম আমাদের পেশিকে শিথিল করে। পাশাপাশি ব্যায়াম কোমর, পাকস্থলী ও পায়ের পেশিকে শক্ত করতে উপকারী। শক্তিশালী পেশি মেরদণ্ডকে সহায়তা করে এবং কোমরব্যথা কমায়। যোগব্যায়াম, দৌড়ানো, স্ট্রেচিং কোমরব্যথা কমানোর বেশ ভালো উপায়। জেনে নিন দৈনিক মাত্র 30 মিনিট হেঁটে যে যে উপকারগুলো পেতে পারেন।

২। গরম ও ঠাণ্ডা স্যাঁক:

গরম ও ঠাণ্ডা স্যাঁক কোমরব্যথা কমাতে সহায়তা করে। ঠাণ্ডা স্যাঁক প্রদাহ কমায় আর গরম স্যাঁক পেশিকে শিথিল করে এবং রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। তবে সরাসরি বরফ ত্বকে লাগাবেন না। একটি তোয়ালের মধ্যে বরফ নিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগান।

৩। ভুল অঙ্গবিন্যাস এড়িয়ে চলুন:

ঘুমের সময় ভুল অঙ্গবিন্যাসও কোমরব্যথা বাড়ায়। তাই অন্তত সাত থেকে আট ঘণ্টা সঠিক অঙ্গবিন্যাসে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। এ ছাড়া ম্যাট্রেস ও বালিশের জন্যও অনেক সময় শরীর ব্যথা করে। তাই অন্তত সাত বছর পর পর এগুলো পরিবর্তন করুন।

৪। হাই হিল এড়িয়ে যান:

আপনাদের মধ্যে যাদের হাই-হিল পরার অভ্যাস রয়েছে তাদের জন্য এক ধরনের দুঃখের সংবাদ রয়েছে। হাই হিল জুতো স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এই ধরনের জুতো কোমর ব্যথা বাড়ায়। তাই আত্মবিশ্বাস বাড়লেও সুস্থ থাকার জন্য এক ইঞ্চির বেশি উঁচু জুতা না পড়াই ভালো।

৫। খাদ্যাভ্যাস

খাবারে ভিটামিন ডি, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি-ওয়ান এর ঘাটতি থাকলে কোমর ব্যথা কমার পরিবর্তে বৃদ্ধি পেতে পারে। তাই সুস্থ থাকার জন্য পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করুন।

আরও কিছু

#ধূমপান পরিহার করুন:

ধুমপান শরীরে হাড় দুর্বল করে তোলে। তাই যারা বেশি ধূমপান করেন তাদের দীর্ঘ মেয়াদে কোমর ব্যথা তৈরি হতে পারে। তাই দেরি না করে আজই ধূমপান পরিহার শুরু করুন।

#কাজ করা বসা বা ঘুমানোর সময় সাবধানতা অবলম্বন করুন:

দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকা বা বসে থাকা, কুঁজো হয়ে বসা বা ঘুমানোর সময় অসাবধান ভাবে ঘুমিয়ে থাকা হতে পারে আপনার কোমর ব্যথার অন্যতম কারণ। তাই দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে কাজ করতে হলে কিছু সময় অন্তর অন্তর বসার ব্যবস্থা রাখুন। অথবা দীর্ঘ সময় বসে বসে কাজ করার ক্ষেত্রে মাঝে মাঝে উঠে দাঁড়ান। ঘুমানোর সময় সাবধানতা অবলম্বন করুন এবং সঠিক নিয়ম অনুযায়ী শুয়ে ঘুমানোর ব্যবস্থা করুন।

#ওজন কমানো দিকে লক্ষ্য দিন:

শরীরে মাত্রাতিক্ত ওজন কোমরের উপরে অধিক চাপ প্রদান করে। ফলে শরীরে মেরুদন্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং কোমর ব্যথা সৃষ্টি হতে পারে। তাই নিয়মিত ব্যায়াম, খাবার-দাবার ও ভালো কিছু অভ্যাস পালন করার মাধ্যমে ওজন কমানোর দিকে লক্ষ্য দিন। যে কাজগুলো অবশ্যই ওজন কমাতে সাহায্য করে তা জেনে নিন।

সোর্স: অনলাইন মিডিয়া ও ম্যাগাজিন
ছবি: pixabay.com