গ্রীষ্মের গনগনে রোদে বাড়ির ছাদ ঠান্ডা রাখার উপায় জেনে নিন

0
26

ছাদ ঠান্ডা রাখার উপায় খুজছেন? আসুন জেনে নিই। আমাদের দেশ গ্রীষ্ম প্রধান দেশ। গ্রীষ্মকালে এদেশের প্রায় সারাদিন ধরে সূর্যের আলো পাওয়া যায়। এই রোদে প্রায় সবার অবস্থাই কাহিল হয়ে যায়। এর মধ্যেই যদি কেউ টপ ফ্লোরে থাকেন তাহলে তো কথাই নেই। বাইরের তাপমাত্রা যদি ৪০ ৪১° সেলসিয়াস হয়। ঘরের মধ্যে তখন তাপমাত্রা হবে প্রায় ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এমন উষ্ণ ঘরে বসার উপক্রমে থাকে না। খাওয়া ঘুম সবকিছুতেই যেন অশান্তি লাগে। এমন ঘরে এসি লাগিয়েও খুব একটা উপকার পাওয়া যায় না। তার উপরে বিদ্যুৎ বিলের চিন্তা তো থাকেই। আসুন জেনে নেই ঘরে এসি না লাগিয়ে টপ ফ্লোর কিভাবে ঠান্ডা রাখা সম্ভব। ‌

ছাদ বাগান করে ছাদ ঠান্ডা রাখার উপায়:

ছাদ ঠান্ডা রাখার একটি অন্যতম সুন্দর এবং ভালো একটি উপায় হল ছাদবাগান করা। নিজেদের বাড়ি হলে অতি সহজেই ছাতবাগান করা শুরু করতে পারেন। এই গ্রীষ্মকালে ছাদে বেশ কিছু ধরনের সবজি চাষ করতে পারেন। যেমন করলা, শশা, কাঁকরোল, ঢেঁড়স ইত্যাদি। এছাড়া বিভিন্ন রকম ফুলের গাছ রোপন করতে পারেন, ডালিম বা আনার চাষ করতে পারেন, কেউ কেউ আবার ছাদে আঙ্গুরের চাষ করে থাকেন। এভাবে আপনার ছাদে প্রাকৃতিক একটি শেড তৈরি করতে পারেন। যা টপ ফ্লোর ঠান্ডা রাখতে খুব কাজে আসবে।

ছাদে সোলার প্যানেল বসাতে পারেন:

গ্রীষ্মকালে আমাদের গ্রামগঞ্জে বা শহর অঞ্চলে প্রায়ই খুব বেশি লোডশেডিং হতে দেখা যায়। লোডশেডিং এর হাত থেকে বাঁচতে আমরা আইপিএস ব্যবহার করে থাকি। কিছু কিছু ক্ষেত্রে লোডশেডিং এত বেশি থাকে যে আইপিএস এ ব্যাটারি রিচার্জ হওয়ার সময়টুকু পায় না। এমন পরিস্থিতিতে আই পি এস এর পরিবর্তে সোলার প্যানেল ব্যবহার করতে পারেন। বাড়ির ছাদে সোলার প্যানেল প্রতিস্থাপন করার মাধ্যমে সূর্যের আলোকে টপ ফ্লোরে পড়া থেকে বাঁচাতে পারেন। ফলে টপ ফ্লোর অনেক কম উষ্ণ হবে।

ছাদে সাদা রং করুন:

আমরা জানি সাদা রং সূর্যের রশ্মি বিকিরণ করতে সক্ষম। কালো রং সবচেয়ে বেশি তাপ গ্রহণ করতে পারে। অপরপক্ষে সাধারণ তাপ বিকিরণ করতে পারে। তাই আপনার বাড়ির ছাদকে গ্রীষ্মের তথ্য রোধের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ছাদের উপরের সারফেস এবং বাড়ির চারপাশে দেওয়াল সাদা রং করতে পারেন এতে তাপমাত্রা বেশ কয়েক ডিগ্রি হ্রাস পাবে।

ছাদে পানি ঢেলে:

ছাদে বেশ কয়েক বেলা পানি দিয়ে ছাদ ভিজিয়ে ছাদের ফ্লোর এর তাপমাত্রা কিছুটা কমাতে পারেন। ছোট বাড়ির ক্ষেত্রে, কিছুদিনের জন্য বাড়ির ছাদ থেকে পানি পরার পাইপটি বন্ধ করে দিয়ে মোটর দিয়ে পানি তুলে কিছুটা পানি ছাদে জমিয়ে রাখতে পারেন। এভাবে কয়েক সেন্টিমিটার পানি জমিয়ে রাখলে ছাদের তাপমাত্রা অনেকাংশেই কম হবে এবং টপ ফ্লোরে বসবাসকারী লোকজন স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক কম তাপমাত্রা অনুভব করবে।

ছাদে টিন দিয়ে শেড তৈরি করতে পারেন

টিন অতি সহজে উত্তপ্ত হতে পারে। সন্ধ্যা হওয়ার সাথে সাথেই তা ঠান্ডা হয়ে যায়। কিন্তু বাড়ির মেঝে বা ছাদ কনক্রিট দিয়ে তৈরি হওয়ার কারণে সারাদিন ধরে সূর্য রশ্মি কংক্রিটকে এমনভাবে উষ্ণ করে যা মধ্যরাত পর্যন্ত তাপ বিকিরণ করতে থাকে। হলে সারাদিনের সাথে সাথে সারা রাত আপনাকে অতিরিক্ত গরম সহ্য করতে হয়। তাই সম্ভব হলে ছাদে একটি টিনশেড তৈরি করতে পারেন। যা সরাসরি সূর্যরশী আপনার ছাদে পরা থেকে রক্ষা করবে। এছাড়া টিনের পরিবর্তে আপনি ছাদে বিভিন্ন রকম লতানো গাছ লাগিয়ে ছাদে একটি প্রাকৃতিক শেড তৈরি করতে পারেন।

মালচিং করা:

ছাদে খরকুটা ছড়িয়ে সরাসরি আপনার ছাদের কংক্রিট সূর্যের অতি উষ্ণ কিরম থেকে রক্ষা করতে পারেন। খড়কুটা দিয়ে মালচিং করে ছাদের উষ্ণতা কমাতে পারেন। এছাড়া সকাল এবং দুপুরে খড়কুটো পানি দিয়ে ভিজিয়ে দিয়েও ছাদে তাপমাত্রা খুব দ্রুত কমাতে পারেন।