ঢাকাই ছড়ার পাঠ পরিচিতি

0
2009

ঢাকাই ছড়াটি অন্নদাশঙ্কর রায়ের একটি অসাধারণ সৃষ্টি। আলোচ্য ছড়াটিতে ছড়াকার বলেন- তিনি একদা পদ্মা নদীর দেশে অর্থাৎ বাংলাদেশে নিমন্ত্রিত হন। আকাশ পথে বিমানে করে আসার পথে তিনি জানালার পাশের আসনে বসেন। জানালা থেকে তিনি পদ্মা নদী অবলোকন করেন। সিন্ধু পর্যন্ত বয়ে যাওয়া আকাবাকা পদ্মা নদী দেখে তিনি মুগ্ধ হন। আকাশ থেকে তিনি দেখতে পান পদ্মার বুকে বয়ে চলা অসংখ্য পালতোলা নৌকা। এভাবে দেখতে দেখতে তিনি কিছুক্ষণের মধ্যেই ঢাকা শহরে বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। বাংলায় এসে, বাঙ্গালীদের সাথে কথা বলে, তার প্রাণ জুড়ায়। বাংলা ভাষার প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করতে যেয়ে, বাঙ্গালীদের থেকে পাকিস্তানি শাসকদের বাংলা ভাষা কেড়ে নেওয়ার ব্যর্থ চেষ্টা তুলে ধরেন। সেই সাথে তুলে ধরেন পাকিস্তানি শাসক ইয়াহিয়া খান ও টিক্কা খানের অত্যাচারের কাহিনী। ১৯৭১ সালে রাজার বাগ ও রায়েরবাজার বদ্ধভূমিতে পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠীদের নৃশংস গণহত্যার কাহিনীও তুলে ধরেছেন এই ছড়াতে। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধকে তিনি কারবালা ও কুরুক্ষেত্র যুদ্ধের সাথে তুলনা করেছেন। ছড়ার একেবারে শেষ প্রান্তে ছড়াকার অন্নদাশঙ্কর রায় নতুন প্রজন্মের কাছে এ সকল ইতিহাস তুলে ধরার দায়ভার অর্পণ করেন নবাগত লেখকদের হাতে।