বাংলা বানান সতর্কতা – বানান টেকনিক

১. সমস্ত ‘-জীবী’ বানানে ‘বী’; আইনজীবী, পেশাজীবী, বুদ্ধিজীবী;
কিন্তু ‘জীবিকা’ ও জীবিত বানানে ‘বি’।

২. প্রতিযোগী তে ঈ-কার, প্রতিযোগিতা তে ই-কার। এরকম-
সহযোগী> সহযোগিতা
উপকারী> উপকারিতা

৩. প্রাণী তে ঈ-কার, কিন্তু প্রাণিজগত, প্রাণিকুল,
প্রাণিবিদ্যা রে ই-কার

৪. মন্ত্রী, কিন্তু মন্ত্রিসভা, মন্ত্রিপরিষদ
হরীতকী, ভাগীরথী, সমীচীন শব্দগুলোয় দুটোই ঈ-কার
এভাবে-
পিপীলিকা, বিভীষিকা, শারীরিক,
আশীর্বাদ, ইত্যাদি শব্দের শুধু ২য় বর্ণে ঈ-কার।

৫. দূরত্ব বুঝায় না এমন কোন দুর এ ঊ-কার বসে না। যেমন- দূর.. কিন্তু দুরন্ত, দুর্নীতি, দুর্বার, দুর্নিবার

৬. ধরন ও দরুন এ ন, কিন্তু ধারণ, ধারণা, কারণ, করণ, করুণ, দারুণ ইত্যাদি শব্দে ণ হবে।
পরিবহণ, প্রাঙ্গণ, রূপায়ণ, নারায়ণ,
রামায়ণ সবগুলোর শেষে ণ।

৭. শ্রদ্ধাঞ্জলি, গীতাঞ্জলি, প্রেমাঞ্জলি ইত্যাদি অঞ্জলি যুক্ত সকল বানানে লি হবে।

৮. রুপালি, সোনালি, পুবালি, বর্ণালি -আলি প্রত্যয় যুক্ত সকল বানানে ল এর উপর ই-কার।

৯. আশিস, শুভাশিস, স্নেহাশিস.. শিস যুক্ত সকল বানান এরকম, প্রথমটা শ, পরেরটা স।

১০. মুমূর্ষু, মুহূর্ত, শুশ্রূষা -প্রথমটা উ-কার, পরের টা ঊ-কার।

১১. ব্যবচ্ছেদ, সতীচ্ছেদ, শিরশ্ছেদ এগুলোর নিচে ব-ফলা নেই।

১২. পোস্ট, মাস্টার, স্টেশন, স্টোর,
ইস্টার্ন, স্ট্রিট, স্টিল, গ্রিল, স্টিমার
গির্জা, যিশু, খ্রিষ্ট, খ্রিষ্টাব্দ,
ক্রাইস্ট ইত্যাদি সকল বিদেশি শব্দে ‘স্ট’ হবে।

১৩. মধ্যাহ্ন, সায়াহ্ন, চিহ্ন ইত্যাদি বানানে ‘দন্ত্য ন’; এই ‘ন’ হ-এর কাঁধের ওপর বসবে।

১৪. অপরাহ্ণ, পূর্বাহ্ণ ইত্যাদি বানানে ‘মূর্ধন্য ণ’; এই ‘ণ’ হ-এর নিচে বসবে।

১৫. জবাবদিহিতা, দারিদ্র্যতা, দৈন্যতা, সখ্যতা, বৈচিত্র্যতা, উত্‍কর্ষতা বলে কোনো শব্দ নেই; শব্দগুলো যথাক্রমে জবাবদিহি, দারিদ্র্য (বা দরিদ্রতা), দৈন্য (বা দীনতা), সখ্য, বৈচিত্র্য (বা বিচিত্রতা) ও উত্‍কর্ষ।

১৬. দাঁড়িপাল্লা, দাঁড়ি-মাল্লা, দাঁড়ি-কমা ইত্যাদি সমস্ত দাঁড়িতে চন্দ্রবিন্দু আছে; কেবল দাড়ি-গোঁফের দাড়িতে চন্দ্রবিন্দু নেই।

Source: internet